অগ্নিকাণ্ডের সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছেন প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্টঃ আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেছেন, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের কন্টেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড শুরু হওয়ার পর থেকেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবগত ছিলেন। রাতেই তিনি চিকিৎসক, প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে পাশে থাকার নির্দেশনা দিয়েছেন এবং হেলিকপ্টার পাঠিয়েছিলেন যাতে করে গুরুতর আহতদের ঢাকার বিশেষায়িত হাসপাতাল শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে যাওয়া যায়।

সোমবার (৬ জুন) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে আহত রোগীদের পরিদর্শন শেষে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আজকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে শেখ হাসিনা বার্ন ইনিস্টিটিউটের সমন্বয়কারী শ্যামন্ত লাল সেনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি টিম চমেক হাসপাতালে এসেছে। যদি কোন রোগীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন হয়। তাহলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে সমন্বয় করে তারা রোগী সেখানে নিয়ে যাবেন।

বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, এ ঘটনায় প্রায় অর্ধশত প্রাণহানি হয়েছে। এখানে যদি কারো ব্যর্থতা বা অবহেলা থাকে সেটির জন্য একাধিক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং সরকারের পক্ষ থেকে যারা মারা গিয়েছেন তাদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। যারা আহত হয়েছেন তাদের উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঘটনার পর চট্টগ্রামের জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে বিশেষ করে আ.লীগ পরিবারের সমস্যরা রাত জেগে যেভাবে মানুষকে হাসপাতালে এসে সহায়তা প্রদান করেছেন এটি একটি অভূতপূর্ব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here