পাইকগাছা কপিলমুনির ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে উৎকোচ গ্রহণের অভিযোগ

0
145
ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে উৎকোচের অভিযোগ

শেখ খায়রুল ইসলাম,পাইকগাছা, খুলনাঃ খুলনা পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আঃ গণি গাজীর বিরুদ্ধে ব্যক্তির মৃত্যু রেজিষ্ট্রারে নাম সংশোধনের জন্য উৎকোচ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুন>>>যশোরে সন্ত্রাসীরা বন্ধ করল খড়কি কলাবাগান পাড়ার এক মুদি দোকান

ভুক্তভোগী জিয়াউর রহমান এ সংক্রান্ত বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগে প্রকাশ, পাইকগাছা উপজেলার ২নং কপিলমুনি ইউনিয়নের বাসিন্দা নাছিরপুর গ্রামের শেখ জিয়াউর রহমানের পিতা শেখ নুর ইসলাম ২৩ ফেব্রুয়ারি মৃত্যুবরণ করেন। এসময় সংশ্লিষ্ট ইউপির সদস্যরা মৃত্যু রেজিষ্ট্রারে তার পিতার নাম অন্তভুক্ত করেন।

আরও পড়ুন>>>‘নগদ’এর স্বাস্থ্য সুরক্ষার উপহার সামগ্রী পেলেন র‌্যাব সদস্যরা

পরবর্তীতে পুত্র জিয়াউর রহমান তার পিতার মৃত্যু সনদ গ্রহণের সময় নামের স্থলে তথ্যগত অসঙ্গতি দেখতে পায়। তখন জিয়াউর রহমান পরিষদের মৃত্যু রেজিষ্ট্রারে তার পিতার নাম সঠিক করে পূর্ণাঙ্গ ভাবে লেখার জন্য ইউপি সচিবকে অনুরোধ করেন। এমতাবস্থায় ইউপি সচিব গণি গাজী ইউএনও অফিসের দোহাই দিয়ে ভুক্তভোগীর কাজ থেকে ৭’শত টাকা গ্রহণ করে।

আরও পড়ুন>>>নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন

কিন্তু অদ্যাবধি তার পিতার নাম সংশোধন হয়নি। একপর্যায়ে কারণ জানতে ২০ এপ্রিল বেলা ২.৩০ মিনিটের দিকে পরিষদ প্রাঙ্গণে গেলে তাকে ইউপি সচিব গণি গাজী অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ পূর্বক এক পর্যায়ে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করেছেন ভুক্তভোগী জিয়াউর রহমান।

আরও পড়ুন>>>স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে যশোরের ঈদের বাজার, অমান্য স্বাস্থ্যবিধি

এ বিষয়ে প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন তিনি।

এব্যাপারে জানতে চাইলে কপিলমুনি ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সচিব আঃ গণি গাজী বলেন, জিয়াউর রহমান তার পিতার নাম সংশোধনের জন্য আমার কাছে এসেছিল সঠিক। তবে তার সাথে আমার কোন প্রকার অর্থনৈতিক লেনদেন হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here