কলারোয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় নারীকে পিটিয়ে জখম, বাড়ী- ঘর ভাংচুর

0
90
কলারোয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় নারীকে পিটিয়ে জখম, বাড়ী- ঘর ভাংচুর
ছবি- প্রতিনিধি

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার কলারোয়ায় তুচ্ছ ঘটনায় এক নারীকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এসময় ওই নারী বাড়ী- ঘর ভাংচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এঘটনায় কলারোয়া থানায় ৪জনের নামে একটি অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে-উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের শুভংকরকাটির পশ্চিমপাড়া গ্রামে।

আরও পড়ুন>>>কলারোয়ায় জনবসতি এলাকায় ক্লিনিক নির্মাণ, ইউএনও অফিসে দরখাস্ত

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে- শুভংকরকাটি গ্রামের আব্দুল আজিজ এর স্ত্রী পারুল খাতুন ১৬ অক্টোবর সকাল ১১টার দিকে তার ভাই হাসানের উঠানে ধান রাখাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ খন্দকার রাকিবুল ইসলাম ইমন এর সাথে কথাকাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষ খন্দকার রাকিবুল ইসলাম ইমন ডাকচিৎকার করে খন্দকার ইসরাইল হোসেন, সেলিনা খাতুন ও সাহিনা খাতুনকে জড়ো করে।

এসময় তারা দলবদ্ধ হয়ে দেশীয় অস্ত্রে-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালায়। তাদের হামলায় পারুল খাতুন (৩৬) মারাক্তক জখম প্রাপ্ত হয়।

ওই সময় প্রতিপক্ষরা আহত পারুল খাতুনের টানা হেঁছড়া করে শ্লীলতাহানি ঘটিয়ে গলায় থাকা একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়।

এসময় আব্দুল আজিজ তার স্ত্রী পারুলকে বাচাতে এগিয়ে আসলে তাকে খুন করার জন্য প্রতিপক্ষরা ছুটে আসলে সে প্রাণ ভয়ে বাড়ি থেকে ছুটে পালিয়ে নিজের জীবণ রক্ষা করে।

আরও পড়ুন>>>পাইকগাছায় পূজা উদযাপন পরিষদের প্রতিবাদ সমাবেশ

পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় আহত ওই নারী কলারোয়া হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এঘটনা উল্লেখ্য করে আহত পারুল খাতুন বাদী হয়ে খন্দকার রাকিবুল ইসলাম ইমুন, খন্দকার ইসরাইল হোসেন, সেলিনা খাতুন ও সাহিনা খাতুনের নামে কলারোয়া থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here