যশোরের কেশবপুরে মামলা তুলে না নেওয়ায় বাদীর বাড়ি হামলা ও ভাংচুর

316
কেশবপুরে-বাদীর বাড়ি-ভাংচুর

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: যশোরের কেশবপুর উপজেলার হাসানপুর ইউনিয়নের টিটাবাজিতপুর গ্রামে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনায় মামলা করে বিপাকে পড়েছে এক নারী।
মামলা তুলে নিতে অপারগতা প্রকাশ করায় আসামীরা ওই মামলার বাদীর বসত বাড়ি ভাংচুর ও মারপিট করে আহত করেছে।

খবর পেয়ে কেশবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এবিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন>>>এবছর পিছু ছাড়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে শৈত্য প্রবাহের

জানা গেছে, উপজেলার টিটাবাজিতপুর গ্রামের আবুল কাশেম সরদারের মেয়ে আমেনা খাতুনকে শ্লীলতাহানী, মারপিট ও নির্যাতনের ঘটনায় গত ১১ নভেম্বর একই গ্রামের আলমগীর হোসেন সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে যশোর আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করা হয়। যার নং-৬৩/২০।

এ মামলা তুলে নিতে আসামী আলমগীর হোসেন সহ একই গ্রামের ওজিয়ার রহমান, আব্দুল মজিদ বিভিন্ন ভাবে বাদী আমেনা খাতুনকে হুমকি প্রদান করে আসছে।

মামলা তুলে নিতে অপারগতা প্রকাশ করায় রোববার (২০ ডিসেম্বর) সকালে বাদীর বাড়িতে ঢুকে হামলা, মারপিট ও ভাংচুর করে আসামীরা।

এ হামলার ঘটনার বাদীর পিতা আবুল কাশেম সরদার (৫৪) , দাদিমা রিজিয়া খাতুন (৬৫) ও ভাই সোহাগ হোসেন (২৬) আহত হয়েছে। খবর পেয়ে কেশবপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এবিষয়ে কেশবপুর থানায় আমেনা খাতুন বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

সকল অভিযোগ অস্বীকার করে ওজিয়ার রহমান বলেন, একটি পক্ষের ইন্ধনে আমাদের সুনাম ক্ষুন্ন করতে নিজেদের বাড়ি নিজেরা ভেঙ্গে আমাদের দোষারোপ করে বানোয়াট অভিযোগ করা হয়েছে।

কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জসীম উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এবিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও পড়ুন>>>
যশোরের শার্শায় পাঁচ লক্ষ আমরেকিান ডলার সহ দুই পাচারকারী আটক
পালিয়ে থাকা পিকে হালদারের ৫-৬ ডর্জন গার্লফ্রেন্ড, চলছে অনুসন্ধান : দুদক
প্রচন্ড হাড় কাপানো শীত যশোর সহ দক্ষিণ অঞ্চল
ঢাকা রেঞ্জের মাননীয় ডিআইজির আগমনে যশোর পুলিশ সুপারের ফুলের শুভেচ্ছা

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here