গণডাকাতির দেড়মাস পর চুয়াডাঙ্গায় আবারও ছিনতাই

জনি আহমেদ, চুয়াডাঙ্গাঃ চুয়াডাঙ্গায় কিছুতেই যেন ঠেকানো যাচ্ছে না চুরি ছিনতাই-ডাকাতি। দিন কিম্বা রাত যখন তখন যেখানে সেখানে এসব ঘটনা ঘটেই চলেছে।

এর আগেও গত (৩০ জুন) বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে সদর উপজেলার গড়াইটুপি-সড়াবাড়িয়া সড়কে রাস্তার ওপর গাছ ফেলে গণডাকতির ঘটনা ঘটায় একদল ডাকাত। তারপরও প্রশাসনের অফিযান তেমন কোন উন্নতি না হওয়ায় একের পর এক চুরি ছিনতাইসহ ডাকাতির ঘটনা ঘটছে। তারই অংশ হিসেবে এবার দিনে দুপুরে ফ্লিমস্টাইলে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।

আরওপড়ুন>>>অবৈধ পথে ভারতে পাচার হওয়া ৯ বাংলাদেশীকে হস্তান্তর

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) দর্শনা-হিজলগাড়ী সড়কে এক নারীর কাছ থেকে ২জন ছিনতাইকারী চলন্ত অবস্থায় নগদ ১২ হাজার টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় যায় বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

জানা গেছে, গতকাল চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর ইউনিয়নের দোস্ত গ্রামের আমতলা পাড়ার প্রবাসী বিল্লালের স্ত্রী সন্তান-স্বজনের সাথে নিয়ে কোটচাঁদপুর আত্মীয় বাড়িতে বেড়াতে যাচ্ছিল। দর্শনার উদ্দেশ্যে পাখি ভ্যানযোগে রওনা দেয় তারা।  সেসময় দর্শনা-হিজলগাড়ী সড়কের দুধপাতিলা দোয়েল ইটভাটার কাছে পৌঁছালে পিছনের দিক থেকে  মোটরসাইকেলে আসা দুইজন ব্যক্তি কৌশলে চলন্ত ভ্যানে বসে থাকা প্রবাসী বিল্লালের স্ত্রীর হাতের ভ্যানিটিব্যাগ টেনে নিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যায়। সেসময় ভ্যান থেকে পড়ে গিযে গুরুতর আহত হয় ওই নারী। পরে দর্শনা থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী নারীর পরিবারের সদস্যরা জানায়, ভ্যানিটিব্যাগে নগদ ১২ হাজার টাকা, স্বর্ণের তৈরি একজোড়া হাতের বালা, একটি নাকফুল, একজোড়া কানের দুল, একটি চেইন ও ২টি আংটিসহ আনুমানিক ২ লাখ মালামাল ছিলো।

এ ঘটনায় দর্শনা থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার আহম্মদ আলি বলেন, ঘটনাস্থল দামুড়হুদা থানা এলাকার মধ্যে হওয়ায় ভুক্তভোগীদের সেখানে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, এ ধরনের একটি ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা থানায় এসেছিলো। আমরা শোনার পরে মালামাল উদ্ধারের অভিযান চালানো হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here