টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে চার ভোটারের কব্জি-আঙুল কেটে ফেলল প্রতিপক্ষ

টাঙ্গাইলে ভোটারের কব্জি কেটে
আহতরা

ডেক্স রিপোর্ট : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পৌর নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলা ও ধাওয়া পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় নারীসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।এদের মধ্যে সোমেলো বেগম নামে এক নারীসহ দুই জনের কব্জি ও দুই জনের হাতের আঙুল বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

তৃতীয় ধাপে পৌর নির্বাচনে টাঙ্গাইলের পাঁচটি পৌরসভায় আজ শনিবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে ব্যালটের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

আরও পড়ুন>>>জকিগঞ্জ গোলাপগঞ্জ কার মূখে প্রতিক্ষিত শেষ হাসি

পরে বেলা সোয়া ১১টার দিকে পৌরসভার কুতুবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ হামলা ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ভূঞাপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী পানির বোতল প্রতীকের আনোয়ার হোসেন সমর্থিতরা জাল ভোট দেওয়া শুরু করেন। বিষয়টি নিয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী উটপাখি প্রতীকের জাহিদুল ইসলামের সমর্থকরা প্রতিবাদ করেন।

আরও পড়ুন>>>ঝালকাঠির নলছিটি পৌরসভায় বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভোট বর্জন

এক পর্যায়ে জাহিদুলের এজেন্টসহ সমর্থকদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়। এসময় দুই পক্ষের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা শুরু হলে আনোয়ার গ্রুপের লোকজন জাহিদুল ইসলামের সমর্থকদের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো শুরু করে। এতে জাহিদুলের পক্ষের নারীসহ ১০ জন আহত হয়।

এদের মধ্যে সোমেলা বেগমসহ দুই জনের হাতের কব্জি ও দুই জনের আঙুল কেটে ফেলা হয়। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

১ নম্বর ওয়ার্ডে দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসার শাহীনুল ইসলাম বলেন, দুই কাউন্সিলর প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় ৩০-৩৫ মিনিট ভোটগ্রহণ বন্ধ রাখা হয়। বর্তমানে ভোটগ্রহণ চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here