নড়াইলে শারদীয় দুর্গা মন্দিরগুলোতে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

রিপন বিশ্বাস, জেলা প্রতিনিধি নড়াইলঃ নড়াইলে সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় এ উৎসবকে ঘিরে শেষ হয়েছে প্রতিমা তৈরির কাজ। ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। মাটি দিয়ে প্রতিমার আকৃতি বানানো শেষ। মনের মাধুরী মিশিয়ে দেব দেবীকে সাজাচ্ছেন প্রতিমা শেষ বাহারি রঙ আর হাতের সুনিপুণ ছোঁয়া। প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছে প্রতিমা।

আরও পড়ুন >>>যশোরের বেনাপোলে নুর শপিং কমপ্লেক্সে আগুন

এ বছর নড়াইলে ৬৫০ টি মণ্ডপে দুর্গা পূজা উদযাপন হবে । শারদীয় উৎসব সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা ।
পূজা উদযাপন উপলক্ষে শান্তির্পূন করতে পুলিশসহ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়েছে।
 আগামী ১ অক্টোবর ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে দুর্গোৎসব শুরু হয়ে ৫ অক্টোবর প্রতিমা বিসর্জনের মধ্যদিয়ে সমাপ্তি ঘটবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা । এসময় শিশির ভেজা দূর্বা ঘাসের ওপর ঝরে পড়া শেফালী ফুল কুড়ানোর সময়টাতে মাতৃবন্দনায় মিলিত হবেন মাতৃভক্তবৃন্দ সকলেই ।
পুরোহিত শ্যামল চক্রবর্তী জানায়, এবছর দেবী দুর্গা গজে আসবে এবং নৌকায় ফিরে যাবেন। দেবী দুর্গা অসুর দমনের শুভ শক্তি নিয়ে ধরাদামে আগমন করবেন, দুষ্ঠের দমন আর সৃষ্টের পালনের জন্যই দশহস্তে দেবী দুর্গা স্বর্গ থেকে মর্ত্যলোকে আগমন করেছিলেন।
এ বিষয়ে খাল যোগানিয়া বটতলা সার্বজনীন পূজা মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক রিপন হাজরা বলেন, প্রতি বছর দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। সার্বজনীন এ পূজা মণ্ডপে দুর্গাদেবীর সকল ভক্তবৃন্দের স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি সবসময় দেখার মতো হয়। আর আনন্দ উৎসবে মুখরিত হয় পূজা মন্দির চত্বর।আমরা প্রতি বছর দুর্গাপূজায় প্রশাসনের নিরাপত্তাসহ সরকারি সবরকম সুযোগ-সুবিধা পাই।
নড়াইল জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অশোক কুমার কুন্ডু জানান , নড়াইলে শান্তিপূর্ণ ভাবে পূজা আয়োজনের জন্য ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এবার পূজোয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার, প্রতিটি পূজামণ্ডপে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ, জেনারেটর রাখা ও পরিদর্শন বই রাখার জন্য সকলকে অনুরাধ জানান।
এ নিয়ে নড়াগাতী থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি আসুতোষ বিশ্বাস বলেন ,এ থানায় ৬ টি ইউনিয়নে ৬৩ টি মন্ডপে পূজা উৎযাপন করা হবে ।জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে এ উৎসব সম্পন্ন করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
এদিকে শিল্পীদের দক্ষ হাতের ছোঁয়ায় পূর্ণরুপে ফোটে ওঠছে দৃষ্টি নন্দন অধিকাংশ প্রতিমা। দেবী দূর্গা আসছেন অন্ধকার আচ্ছন্ন পৃথিবীকে আলোকিত করতে। এ বছর বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থায় ছোট বড় প্রতিটি মন্ডপে স্থাপন করা হচ্ছে সিসি ক্যামেরা।
নড়াগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ সুকান্ত কুমার সাহা বলেন শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই ভালো। আইন-শৃঙ্খলার যেন কোন অবনতি না হয় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে আমরা কাজ করছি। সকলের সহযোগিতা পেলে আশা করছি শারদীয় পুজা ভালো ভাবে সম্পন্ন করতে পারবো।
উল্লেখ্য , এছাড়াও নিয়মিতভাবে সার্কেল অফিসার, সকল থানার অফিসার ইনচার্জ এবং বিট অফিসারগণ স্ব-স্ব এলাকাধীন পূজামণ্ডপ সমূহ পরিদর্শন করছেন।
পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশনায় আগামী ০১ অক্টোবর হতে পূজার শেষ অবধি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা ও সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জেলা পুলিশের বিশেষ নজরদারি, টহল ও গোয়েন্দা তৎপরতা (vigilance) অব্যাহত থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here