যশোরে প্রতিষ্ঠত সাত সন্তানের বৃদ্ধা মায়ের ঠাঁই গোয়াল ঘরে

ডেস্ক রিপোর্টঃ যশোরের সতীঘাটায় খরিচাডাঙ্গা গ্রামে প্রতিষ্ঠিত সাত সন্তান থাকতেও এক বৃদ্ধা মাকে গরুর গোয়াল ঘরে রাখার অভিযোগ উঠেছে ওই ছেলেদের বিরুদ্ধে।
সরেজমিনে যেয়েও এ তথ্য মিলেছে। স্থানীয়রা জানান, যশোর সদরের রামনগর ইউনিয়নের সতীঘাটায় খরিচাডাঙ্গা গ্রামের মৃত বারেক গাজীর স্ত্রী খুরশীদা বেগমকে (৮৫) গরুর গোয়াল ঘরে রেখে দিয়েছে তার ছেলে রশীদ গাজী নিজে । এতে বৃদ্ধার অন্য সন্তানদেরও মত রয়েছে। সেখানে বৃদ্ধা মা অযত্নে-অবহেলায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন।
এলাকাবাসী জানান, বৃদ্ধার ৯ টি সন্তান। তার মধ্যে দুইজন মারা গেছেন। তার বড় ছেলে সাবেক মেম্বর মালেক গাজী। এছাড়াও অন্য সন্তানেরাও সমাজে প্রতিষ্ঠিত।
এ বিষয়ে ভুক্তোভোগী বৃদ্ধা মহিলা খুরশীদা বেগম কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমার অনেক জমি ছিল কিন্তু এখন আর নেই, স্বামী ও বেঁচে নেই তাই সবাই অবহেলা করে।
এ বিষয়ে রশীদ গাজী জানান, আমরা ৫ ভাই ও ২ বোন বেঁচে আছি। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় হলো আমি ছাড়া আর কোন ভাই আমাদের এই বৃদ্ধা মা’র কোন খোঁজ-খবর নেয় না।
তিনি আরও বলেন, আমার ঘরে কোন জায়গা নেই তাই মাকে আপাতত গোয়াল ঘরে রেখেছি।
এদিকে, এ বিষয়ে দ্রুত প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে স্থানীয়রা। নেক্কার জনক এ ঘটনায় সন্তানদের বিচার চেয়েছেন তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here