দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমদের সঙ্গে ভাস্কর্য নিয়ে আলোচনায় সমাধান,আন্দোলন না করার আশ্বাস

ভাস্কর্য-আলেমদের-আলোচনা-আশ্বাস

ডেক্স রিপোর্ট: দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমদের সঙ্গে ভাস্কর্য নিয়ে আলোচনায় সমাধান, আন্দোলন না করার আশ্বাস আলেমদের।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য স্থাপন নিয়ে আর আন্দোলন না করার আশ্বাস দিয়েছেন দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমরা। আলোচনা শুরু হয়েছে আলোচনা চলবে, এই আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যার সমাধান হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

গত সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) রাতে দেশের শীর্ষ আলেমদের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন নিয়ে সৃষ্ট অস্থিরতা নিরসনে বৈঠকের সিদ্ধান্তের বিষয়ে আজ মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এই তথ্য জানান।

ঢাকার ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনে হেফাজতে ইসলামের নেতাসহ দেশের শীর্ষ কওমি আলেমরা বিরোধিতা করে আসছেন। এরমধ্যে গত ৪ ডিসেম্বর রাতের কুষ্টিয়া পৌরসভার পাঁচরাস্তার মোড়ে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কার্য ভেঙে ফেলা হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ধানমন্ডিতে আমার বাসভবনে কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) সভাপতি ও আল হাইয়াতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে দেশের ১২ জন শীর্ষস্থানীয় আলেম একসঙ্গে বসি এবং মতবিনিময় করি।
সেই সভায় মাওলানা ফরিদ উদ্দিন মাসউদ, মাওলানা মাহফুজুল হক, ওবায়দুল রহমান নদভী, মাওলানা মো. নুরুল ইসলামসহ ১২ জন আলেম উপস্থিত ছিলেন। আমাদের ধর্ম প্রতিমন্ত্রী (ফরিদুল হক খান), ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব ও আমাদের অতিরিক্ত সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

গত ৫ ডিসেম্বর সারাদেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমরা মাহমুদুল হাসানের ডাকে একত্রিত হয়েছিলেন। সেখানে তারা অনেক বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলাপ করেছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে একটি পত্র তারা প্রেরণ করেছিলেন, সেই পত্রের কপিও তারা আমাদের দিয়েছেন। সেটার বিষয়ে আলাপ-আলোচনার বিষয়েই ধানমন্ডিতে আমার বাসভবনে গিয়েছিলেন। একটা ফলপ্রসূ আলাপ হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ।

মন্ত্রী বলেন,আমরা আলাপ করেছি, এগুলো নিয়ে আরও আলাপ হবে।  দীর্ঘ আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে এইটুকু সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, আমরা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে ঐকমত্যের মাধ্যমে শেষ করতে পারব, ইনশাআল্লাহ। তাদের পাঁচটি প্রস্তাবের সবগুলো নিয়েই আলোচনা হয়েছে।

কোন কোন বিষয়ে ঐকমত্য হয়েছে- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে আমরা সবগুলো বিষয়েই ঐকমত্যে পৌঁছাতে পারব। আলাপ-আলোচনা যে শুরু হয়েছে, এটা চলবে।

ভাস্কর্যের বিষয়ে তারা কী বলেছেন- এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘তারা এই বিষয়ে আরও বিস্তারিত আলাপ করবেন। আলাপ শুরু হয়েছে, আলাপের মাধ্যমেই আমরা এগুলো সব শেষ করব।

তারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের পরিবর্তে মুজিব মিনার করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন, তারা কি এখনও সেই অবস্থানে আছেন- এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যথার্থই বলেছেন, ওখানে কুতুব মিনারের আদলে একটি মুজিব মিনার তৈরি করার জন্য। তারপর তারা বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নিশ্চয়ই এই বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তারা দেখা করতে চেয়েছেন। সবকিছুই আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে আমরা ঐকমত্যে পৌঁছাতে পারব ইনশাআল্লাহ।

আমরা যতটুকু আলাপ করেছি আমরা মনে করি একটি সুন্দর পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। তারা এই আবেদন রেখেছেন, কেউ যাতে রাস্তায় নেমে এসে ভাঙচুর না করেন। কেউ যেন এসে কোনো ধরনের শান্তি-শৃঙ্খলা ভঙ্গ না করে অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টি না করে, এই ব্যাপারে তারা আমাদের সঙ্গে সম্পূর্ণ ঐকমত্যে আসছেন।

আসাদুজ্জামান খান আরও বলেন, পাঁচটি দাবি তারা আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই শেষ কতে চান। আমরা অনেকদূর এগিয়েছি। আশা করি আলোচনার মাধ্যমেই ফয়সালা করতে পারব।

তারা বলেছেন, কোনো রকমের আন্দোলন তারা করবেন না। পাঁচটি দাবি আলোচনার মাধ্যমে তারা শেষ করতে চান। এগুলো সংবিধানবিরোধী হলে তো তা মানার শক্তি আমাদের নেই। আমরা সংবিধানের বাইরে যাব না। আমরা কারো ধর্মীয় সেন্টিমেন্টেও আঘাত করতে চাই না। আলোচনার মাধ্যমে শেষ করতে চাই বলেন আসাদুজ্জামান খান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here