মনিরামপুরে এক বাড়ীতে ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে মারাত্মক জখম : থানায় মামলা

315
মনিরামপুরে-কুপিয়ে-জখম-মামলা

আব্দুল্লাহ আল মামুন,(যশোর)মনিরামপুর প্রতিনিধি: যশোরের মনিরামপুর উপজেলার মশ্বিমনগর গ্রামে প্রকাশ্য দিবালোকে আব্দুর রহিমকে খুন করার উদ্দেশ্যে তার বাড়ীতে বেআইনিভাবে দলবদ্ধ হয়ে প্রবেশ করে তাকে ও তার স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গতকাল সোমবার সকাল ৮ টার দিকে মশ্বিমনগর গ্রামের মৃত শওকত আলী খানের বড় পুত্র আব্দুর রহিমকে খুন করার উদ্দেশ্যে প্রায় ১৮/২০ জন বেআইনিভাবে সশস্ত্র অবস্থায় আব্দুর রহিমের বাড়ীতে প্রবেশ করে।

প্রতিপক্ষ সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা রহিম ও তার স্ত্রী আলেয়াকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ী কুপিয়ে গুরুতর জখম করে মৃত ভেবে ফেলে রেখে যায়।

এ সময় সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ঘরে ঢুকে প্রায় আশি হাজার টাকা নিয়ে গেছে। পাশের বাড়ীর লোকজন ঘটনাস্থলে এসে মারাত্মক জখম অবস্থায় পড়ে থাকা রহিম ও তার স্ত্রী আলেয়াকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। গুরুতর জখম আব্দুর রহিম এখন হাসপাতলে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

এ ঘটনায় রহিমের ছেলে মেহেদী হাসান বাপ্পী বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক অজ্ঞাত নামা আরও ৭/৮ জন এর নামে মামলা দায়ের করেছে।

আসামীরা হলেন, মৃত ছবেদ আলী খানের ছেলে ইউনুস খান, মৃত শওকত আলী খানের ছেলে মহাসিন খান, মৃত নওশের আলী খানের ছেলে আকবর আলি খান, মৃত হাজী বাসতুল্যাহ সরদারের ছেলে রবিউল সরদার, রেজাউল খানের ছেলে আলামিন, ইলিয়াস আলী খানের ছেলে ইউছুফ আলী খান, আবদুল হাইয়ের ছেলে ইমরান খান, আনসার আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম, মৃত ছবেদ খানের ছেলে ইদ্রিস আলী, খলিলুর রহমানের স্ত্রী রেহেনা খানম, আনসার আলীর ছেলে আনিসুর রহমানসহ অজ্ঞাত আরো ৭/৮ জনের নামে মামলা দায়ের করেছে। যার মামলা নং ২১৮/২০ । তাং ১৫-১২-২০২০।

এদিকে মামলার বাদী বাপ্পি জানায়, আমার মেজো কাকা খলিল এর সাথে আমার পিতা আব্দুর রহিমের দীর্ঘদিনের শত্রুতা চলে আসছে। সেই সূত্র ধরে কাকা খলিল সকালে আমাদের বাড়ীতে তার বাহিনীর লোকজন পাঠায়।

তারা এসে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমার পিতা ও মাতাকে এলোপাতাড়ী কুপিয়ে জখম করে ফেলে রেখে যায়। আমার পিতা-মাতা এখন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
এ ঘটনায় আমি তাদের নামে মামলা করেছি।

আসামিরা এখনো গ্রেফতার না হওয়ায় তারা বিভিন্নভাবে আমাদের ভয়-ভীতি ও জীবন নাশের হুমকি-ধামকি দিয়ে চলেছে। ফলে আমরা বাড়ীতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

আরও পড়ুন>>>
বেনাপোল সীমান্তে দেড় কোটি টাকার ২৪টি স্বর্ণবারসহ পাচারকারী আটক

গ্রীষ্মকালীন হাইব্রিড টমেটো উৎপাদনে আধূনিক কলা কৌশলের উপর দিনব্যাপী কর্মশালা

কলারোয়ায় রাস্তাধারে পাওয়া ৭বছরের সেই শিশুটি অবশেষে জাস্টিস কেয়ার হেফাজতে

দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমদের সঙ্গে ভাস্কর্য নিয়ে আলোচনায় সমাধান,আন্দোলন না করার আশ্বাস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here