সাকিবের ব্যাটে জিতলো কলকাতা

0
61
সাকিবের ব্যাটে জিতলো কলকাতা
ছবি- সংগৃহীত

ক্রীয়া ডেস্কঃ জয়ের জন্য সহজ সমীকরণ ছিল কলকাতার সামনে। ১৮ বলে প্রয়োজন ১৫ রান। হাতে আছে ৬ উইকেট। তখনও অপরাজিত হিসেবে ব্যাটিং করছেন কার্তিক ও নারিন। তখনও ক্রিজে আসেননি অধিনায়ক মরগান ও সাকিব আল হাসান

কলকাতার সহজেই জিতে নেওয়ার কথা এই ম্যাচ। কিন্তু এমন সহজ ম্যাচকেই কঠিন বানিয়ে তুললো কলকাতার ব্যাটসম্যানরা। শেষমেষ টাইগার অলরাউন্ডার সাকিবের ব্যাটে ভর করেই জয়ের বন্দরে পৌছালো তারা।

আরও পড়ুন>>>সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাবরের ৮ বছরের কারাদণ্ড

জিতলে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত নয়। তবে হারলে ছিটকে যেতে হবে টুর্নামেন্ট থেকে। আইপিএল ২০২১-এর এলিমিনেটরে এরকমই ডু-অর-ডাই ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের মুখোমুখি হয়ে জয় চিনিয়ে নিলো কলকাতা নাইট রাইডার্স।

শেষ ওভারেই জিতলো কলকাতা। প্রথম বলেই সাকিব চার মারে ক্রিশ্চিয়ানকে। সেখানেই ম্যাচের নিষ্পত্তি হয়ে যায়। দ্বিতীয় বলে ১ রান নেন। তৃতীয় বলে মর্গ্যান ১ রান নেন। চতুর্থ বলে ১ রান নিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন সাকিব।

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের ৭ উইকেটে ১৩৮ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে কলকাতা নাইট রাইডার্স ১৯.৪ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১৩৯ রান তুলে নেয়।

সাকিব ৯ ও মর্গ্যান ৫ রানে অপরাজিত থাকেন। এই জয়ের সুবাদে ব্যাঙ্গালোরকে ছিটকে দিয়ে আইপিএল ২০২১-এর দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের টিকিট অর্জন করে কলকাতা।

আরও পড়ুন>>>চুয়াডাঙ্গায় আলো জ্বালাতে গিয়ে নিভে গেল প্রাণ

টসে জিতেই সোমবার কোহলী জানিয়েছিলেন, পিচ দেখে তার ভালো লেগেছে। মনে হয়েছে প্রথমে ব্যাট করার পক্ষে উপযুক্ত। তিনি এবং দেবদত্ত পাড়িক্কল মিলে শুরুটা ভালো করেছিলেন।

কিন্তু টসের সময় বাকিরা কোহলীর বার্তা বোধহয় ঠিক ভাবে শুনতে পাননি। না হলে প্রথম উইকেট পতনের পরেই এভাবে ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হত না।

কেকেআর-এর শুরুটা হয়েছিল কেকেআর-এর মতোই। বেঙ্কটেশ আয়ার এবং শুভমন গিল আগের ম্যাচগুলির মতোই ভরসা দিয়েছিলেন দলকে। প্রথম জুটিতে ৪১ উঠে যায়।

পরপর দু’ওভারে শুভমন (২৯) এবং রাহুল ত্রিপাঠি (৬) ফিরলেও কেকেআর চাপে পড়েনি। তবে ম্যাচটা কলকাতার পক্ষে এনে দিয়েছে ব্যাটার নারাইনের কামাল।

বেঙ্কটেশ ফেরার পরেই ওভারেই সিরাজকে তিনটি ছক্কা মারলেন তিনি। সেই ওভার থেকে এল ২২।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here