সুগন্ধা নদীর তীরে আটকে থাকা লাশ প্রান কোম্পানীর স্টোর কিপার রাশেদ

289

প্রিয়াঙ্কা ঘরামি ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির নলছিটি থেকে রাশেদুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার রাত সাড়ে নয়টায় উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়নের বারইকরন নামক এলাকায় সুগন্ধা নদীরবারইকরন নামক এলাকায় সুগন্ধা নদীর তীর থেকে রাশেদুলের লাশটি উদ্ধার করেছে নলছিটি থানা পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছে দুপুর ৩ টা থেকে তারা নদীর চরে অচেনা এক ব্যক্তির লাশ দেখতে পায়। ট্রলার চালক আনসার আলী বলেন, রবিবার সকাল ১১ টার দিকে আমি দেখেছি একটি লাশ নলছিটির মাটিভাঙ্গা এলাকা থেকে ভেসে ঝালকাঠির দিকে যাচ্ছে।

স্থানীয় চা দোকানী মিরাজ হোসেন বলেন, রবিবার দুপুরের জোয়ারের সময় বরিশালের দিক থেকে ভাসতে ভাসতে এসে চরে (বারইকরন) লাশটি আটকে পরে। বিকেলে নদীতে ভাটা থাকায় আধা ডুবু লাশটি চরে জেগে উঠে।

ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল চালক সোহেল রানা বলেন, আমরা অজ্ঞাত লাশটি দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দিয়েছি। রাত সারে ৯ টায় ঘটনাস্থলে আসেন নলছিটি থানার ওসি (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার। তিনি বলেন, নদীতে লাশ ভাসছে এমন খবর পেয়ে সকালে আমরা মাটি ভাঙ্গা এলাকায় খোঁজাখুজি করেও লাশটি পাইনি।

এখন বারইকরন চরে আটকে থাকা অবস্থায় পেয়েছি। রাতেই এখান থেকে লাশটি ঝালকাঠি সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নলছিটি থানার সাব ইন্সপেক্টর মফিজুর রহমান রাত ১২ টার দিকে জানান, মোবাইল ফোনের সিম চালু করে নিহতের পরিচয় পাওয়া গেছে।

নিহতের নাম রাশেদুল হক (৩২)। তার গ্রামের বাড়ি নরসিংদী জেলায়। রাশেদ প্রান-আরএফএল কোম্পানীর বরিশাল ডিপোতে (কালিজিরা) ষ্টোর কিপার পদে চাকুরী করতো।

গত ২৪ জানুয়ারী থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলো। এটি একটি হত্যাকান্ড বলেও পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে। বাকিটা ময়না তদন্তের পর যানা যাবে বলে জানিয়েছে নলছিটি থানা পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here